Usabangladesh24.com | logo

১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২রা আগস্ট, ২০২১ ইং

অর্থ আত্মসাতের বিষয় ভিত্তিহীন প্রমান নিয়ে চ্যালেঞ্জ ঘোষনা

প্রকাশিত : জুন ২৩, ২০২০, ১০:৪৬

অর্থ আত্মসাতের বিষয় ভিত্তিহীন প্রমান নিয়ে চ্যালেঞ্জ ঘোষনা

এমদাদুর রহামন চৌধুরী জিয়া: মহান মুক্তিযোদ্ধের এক বীর সৈনিক সিলেটের পরিবহন শ্রমিকদের প্রিয় মুখ, পরিবহন শ্রমিকদের কল্যাণে আপোষহীন ভূমিকা পালনকারী সিলেট বিভাগ ও জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ ফলিক। যার ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় সু-শৃঙ্খলা ও ঐক্যবদ্ধ এখন সিলেটের পরিবহন শ্রমিকরা।
শ্রমিক সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়ে ইতি মধ্যে ২০১৭ সালে দক্ষ পরিবহন শ্রমিক সংগঠক হিসেবে শেরে বাংলা গোল্ড মেডেল ২০১৭ ও সফল ও দক্ষ পরিবহন সংগঠক হিসেবে ২০১৮ সালে মাদার তেরেসা গোল্ড মেডেল ও সনদ সহ তার বর্ণাঢ্য জীবনে একাধিক পদকে ভ‚ষিত শ্রমিক নেতা সেলিম আহমদ ফলিক।


নীতি নৈতিকতা আর শ্রমিক আইন এবং সংবিধান ফলো করে কঠোর হাতে যিনি পরিচালনা করছেন সিলেটের পরিবহন শ্রমিকদের ।
শ্রমিক নেতা ফলিকের কবল থেকে সিলেটের সড়ক পরিবহন শ্রমিকদের নেতৃত্ব দখল নিতে করোনা ভাইরাসের সময় শ্রমিকদের দূর্বলতা পুঁজি করে একটি নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চেয়েছিল একটি ক্রচক্র মহল, এবং শ্রমিক ফান্ডের টাকা বিতরণের অজুহাত দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের অপচেষ্টা করে, সে সুযোগ না পেয়ে মিথ্যা তথ্য দিয়ে শ্রমিকদের উসকানী দেয়, যা পুলিশ প্রশসন এ শ্রমিক সংগঠন কঠোর হাতে দমন করে। যে ঘটনা ছিলো ২জুন সোমবার সিলেটের দক্ষিন সুরমায় শ্রমিকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা।
সিলেট পরিবহন সেক্টরের ৬২ উপ শাখায় শ্রমিক রয়েছেন প্রায় ১৩ হাজার আর পুরো সিলেট মিলিয়ে শ্রমিক রয়েছেন প্রায় ৭০ হাজার। এই শ্রমিকদের এক হাতে নেতৃত্ব দেয়ার কারনে আনেকেই পথের কাটা এখন শ্রমিক নেতা ফলিক।
করোনার সময় শ্রমিকদের প্রায় ৭৫ লক্ষার টাকার ত্রান দেয়া হয়েছে। যা সংকট নিরসন হয় নি। আর এ সুযোগ কাজে লাগিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন।
১৯৮২ সাল থেকে সুনামের সাথে শ্রমিক নেতৃত্বদান কারী সেলিম আহমদ ফলিক পরিচিত রয়েছে জাতীয় ভাবে। শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি সেলিম আহমদ ফলিক সরকারের উচ্ছ মহলে এ রয়েছে যার যোগাযোগ।
শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবী দাওয়া আদায়ে ইতে মধ্যে তিনি স্ব-শরীলে দেখা করে বিষয়াদি উদয্যাপন করেছেন সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের দায়িত্বপাপ্ত মন্ত্রীদের কাছে।
শ্রমিকদের ঐক্যে ফাটল ধরাতে একটি মহর শ্রমিক নেতা ফলিকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনেছে। আত্মসাতের বিষয়ে অপেন চ্যালেঞ্জ ছুড়েন শ্রমিক নেতা ফলিক। তিনি অর্থ আত্মসাতের বিষয় প্রমান করতে পারলে দক্ষিন সুরমার শ্রমিক সংঘর্ষের ঘটনা পুরো দায়ভার নিবেন বলে জানান । শ্রমিক কল্যান ফান্ডের টাকার টাকা মৃত শ্রমিকদের দেয়ার বিধান রয়েছে। করোনা ভাইরাসের অজুহাত দেখিয়ে শ্রমিকদের বিতরণের নামে একটি মহল তা আত্মসাতের চেষ্টা করেছিল।
তিনি আর জানান ২০০৩ সাল থেকে শ্রমিক ক্যলান ফান্ডের টাকা স্ব-স্ব উপশাখার নিজস্ব তহবিলে জমা হয়ে আসছে। সে টাকার বিল ভাউচার আমি শুধু তদারকি করি।


মৃত শ্রমিকদের কল্যানের টাকা শুধু আমার হাতে। ইতি পূর্বে বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল কে প্রধান অতিথি করে আনুষ্টানিক ভাবে মৃত শ্রমিকদের ১৪ জনকে ৫০ হাজার টাকা করে মৃত শ্রমিকদের পরিবারের কল্যানে বিতরণ করা হয়। সব মিলিয়ে ৭০ জন মৃত শ্রমিক ৫০ হাজার করে প্রায় ৩৭,৫০,০০০/- টাকা বিতরন করা হয়। এর পূর্বে মাননীয় পররাষ্ট মন্ত্রী ডক্টর: এ.কে আব্দুল মোমিন প্রধান অথিতি করে একটি আধুনিক বাস টার্মিনাল শুভ উদ্ধদন করা হয়।
তিনি জানান আমার ছেলে আমেরিকা যাওয়ার সময় ক্যাশিয়ার সামসুল হক মানিকের কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকা নেয়ার বিষয় ও দক্ষিন সুরমার শ্রমিকদের সংঘর্ষের সময় আমার ছেলের নেতৃত্বে শ্রমিকদের সশ¯্র হামলার বিষয়টি ভিত্তিহীন। তিনি বলেন শ্রমিকরা আমার ভাই আমার কর্মি আমার পরিবার, আমার শ্রমিকদের উপর আমার ছেলে হামলা করবে এমন শিক্ষায় আমার ছেলে বেড়ে উঠে নি, সে ছোট বেলা থেকে দেখে আসছে তার বাবার সাথে শ্রমিকদের ভালবাসা কেমন। এটা আমার পরিবারের মান সম্মান নষ্ট করার জন্য একটি মহল আমার ছেলের কথা বলে বিবৃতি বা বক্তব্য দিয়েছে।
মিডিয়া দেওয়া বক্তব্য ও বিবৃতি শ্রমিক বিরোধী আখ্যায়িত করে তিনি বলেন শ্রমিক সংঘর্ষ থামাতে আমর ছেলে যায় নি। পরিস্থিতি নিয়ন্তন করেছে দক্ষিন সুরমা থানা পুলিশ।
শ্রমিকদেরকে একটি মহল ইন্দন দিতেছে বুঝতে পেরে শ্রমিকদের উর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দ বিষয়টি নিরসন করেছেন।
মিডিয়ার সাথে একান্ত সাক্ষাৎ কালে দক্ষিন সুরমার শ্রমিক সংঘর্ষ ব্যাখা দিতে গিয়ে এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন এর কেন্দ্রিয় সহ-সভাপতি ও সিলেট বিভাগীয় সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ ফলিক।
শ্রমিক নেতা সেলিম আহমদ ফলিক সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার স¤্রান্ত পরিবারের সন্তান। বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ গোলাপগঞ্জ উপজেলার পৃষ্টপোষকতা করে থাকেন তিনি। স্থানিয় ইউপি আওয়ামিলীগের উপদেষ্টার দায়িত্বও পালন করে আসছেন।
মুক্তিযোদ্ধার পক্ষের সৈনিক হয়ে ও এখন নানা মুখি ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি বলে দাবি করেন সেলিম আহমেদ ফলিক।

সংবাদটি পড়া হয়েছে 328 বার

A Concern Of Positive International Inc USA.
All Rights Reserved -2019-2021

Editor In Chief : Hamidur Rahman Ashraf
Editor : Habib Foyeji
Managing Editor : Mohammad Sahiduzaman Oni
CEO : Mahfuzur Rahman Adnan

2152- B, Westchester Ave., Bronx, New York 10462 USA.

Phone : 9293300588, 7188237535

7188237538 (Fax)

Email :
usabangladesh24@gmail.com (News)

info@usabangladesh24.com (CEO)