Usabangladesh24.com | logo

২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় বুলুসহ ১৫ নেতা জড়িত!

প্রকাশিত : অক্টোবর ২৭, ২০২১, ০৯:০৩

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় বুলুসহ ১৫ নেতা জড়িত!

নিউজ ডেস্কঃ নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীর বিভিন্ন মন্দিরে হামলা ও সহিংসতার ঘটনায় গ্রেফতারকৃত জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি ফয়সাল ইনাম কমল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তিনি এ ঘটনায় বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লা বুলুসহ বিএনপি-জামায়াতের ১৫ নেতার সম্পৃক্ততার বিষয়ে তথ্য দিয়ে জবানবন্দি দেন বলে জানিয়েছেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) পুলিশ সুপারের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

এদিকে জেলার বিভিন্ন পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলার ঘটনায় সোমবার দিবাগত রাতে বিএনপি নেতাসহ মামলার আট আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ও র‍্যাব। আটকদের মধ্যে একজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

পুলিশ সুপার জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার হওয়া ফয়সাল ইনাম কমলকে সোমবার রাতে জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। বিচারক মোহাম্মদ সাঈদীন নাঁহী ১৬৪ ধারায় তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। জবানবন্দিতে কমল চৌমুহনীতে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনার উসকানিদাতা হিসেবে বরকত উল্লা বুলুসহ বিএনপি-জামায়াতের ১৫ জন নেতার সম্পৃক্ততার বিষয়ে তথ্য দিয়েছেন। তবে অন্য নেতাদের নাম তিনি বলেননি। জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় বুলুসহ ১৫ নেতা জড়িত!

 

পুলিশ সুপার আরো জানান, সোমবার গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে চৌমুহনী পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ড করিমপুরের ইমরান হোসেন নিশান (২০) জেলা অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোজী সোনিয়া আক্তারের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। একই আদালতে পূর্বে গ্রেফতারকৃত তিন আসামি নুরুল ইসলাম জীবন, আলী আজগর ও নুরুল ইসলাম সুমনের এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, নিশান ও পূর্বে গ্রেফতারকৃত আব্দুর রহিম সুজনসহ কয়েকজন মন্দিরে লুটপাট করে ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা নিয়ে নিজেদের মধ্যে ভাগবাঁটোয়ারা করেন। নিশান ৮ হাজার টাকা ভাগে পান। এর মধ্যে সাড়ে ৫ হাজার টাকা সে খরচ করে। বাকি আড়াই হাজার টাকা তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়।

এদিকে নোয়াখালীতে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় দলীয় নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা বিএনপি। গতকাল দুপুরে মাইজদীতে কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহানের বাসভবনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় জেলা বিএনপির সভাপতি এ জেড এম গোলাম হায়দার ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, পূজামণ্ডপে প্রকাশ্যে হামলার ঘটনা ঘটানো হলেও সরকার প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করতে পরিকল্পিতভাবে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে গণহারে গ্রেফতার করছে। এমনকি বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বেগমগঞ্জের সাবেক এমপি বরকত উল্লা বুলুকে হুকুমের আসামি করা হয়েছে; যা ঐ এলাকার জনগণ বিশ্বাস করে না। তারা সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানান।

পীরগঞ্জের সহিংসতার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৩

পীরগঞ্জে আরো তিন জন গ্রেফতার

রংপুর স্টাফ রিপোর্টার জানান, মন্দির-গ্রামে হামলার ঘটনায় সোমবার রাতে পীরগঞ্জে নতুন করে তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরা হলেন—উপজেলার ধুলগাড়ী গ্রামের শাফিকুল ইসলাম (২৬), মাদারপুর গ্রামের আশিকুর রহমান (২৪) ও বড় করিমপুর গ্রামের রাজিন ওরফে পলাশ (৩৫)। তারা হিন্দুপল্লিতে সহিংসতার ঘটনায় অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুর মামলার আসামি। এ সময় তাদের একজনের কাছে লুট করা মাছ শিকারের একটি ঝাকি জাল পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র।

কালাইয়ে জামায়াতের ৪ নেতা আটক

কালাইয়ে জামায়াতের চার নেতা গ্রেফতার

কালাই (জয়পুরহাট) সংবাদদাতা জানান, পৌর শহরের সোনালী ব্যাংক শাখার নিচতলার একটি দোকানে গোপন বৈঠককালে জেলা শাখা জামায়াতের আমির ফজলুর রহমান সাঈদ (৫৮), সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া (৪৩), সদস্য নুরুজ্জামান সরকার (৫৯) এবং কালাই উপজেলা আমির মুনছুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মালিক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তারা দোকানে বসে সাম্প্রদায়িক হামলার পরিকল্পনা করছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা হয়েছে।

হাজীগঞ্জে এ পর্যন্ত ৫৪ জন গ্রেফতার

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) সংবাদদাতা জানান, মন্দিরে হামলা সংঘর্ষের ঘটনায় ১০ মামলায় এ পর্যন্ত ৫৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে প্রায় ৫ হাজার জনকে। সোমবার এ তথ্য জানিয়েছেন হাজীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইব্রাহীম খলিল। উল্লেখ্য, কুমিল্লার ঘটনার জের ধরে গত ১৩ অক্টোবর রাতে হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটে। এতে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তালিকা হচ্ছে কুমিল্লায়

কুমিল্লা প্রতিনিধি জানান, জেলায় ধর্ম অবমাননার মামলার নথিটি গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত বুঝে পায়নি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। গত রবিবার রাতে পুলিশ সদর দপ্তরের এক চিঠিতে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তরের আদেশ হয়। রাতে সিআইডি-কুমিল্লার পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। তবে ঘটনার আগে-পরে ঘটনাস্থল ও দারোগাবাড়ি মাজার-মসজিদ এলাকাসহ নগরীর বিভিন্ন স্থানের হামলার ঘটনার সংগ্রহ করা সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে জড়িতদের চিহ্নিত করে তালিকা তৈরি করা হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সংবাদটি পড়া হয়েছে 11 বার

Managing By Positive International Inc.
All Rights Reserved -2019-2021

President Of Editorial Board : Moinul Chowdhury Helal
Editor : Hamidur Rahman Ashraf
Managing Editor : Mohammad Sahiduzaman Oni
CEO : Mahfuzur Rahman Adnan

Contact : 78-19, 101 Avenue, Ozonepark,

New York 11416

Phone : +1 347 484 4404

Email :
usabangladesh24@gmail.com (News)

info@usabangladesh24.com (CEO)